জাতীয় মসজিদ বাইতুল মোকাররম রঙ করার দায়ীত্ব দেয়া হল পুলিশ কে

দেশের জনসাধারনের কাছে এক অনন্য ভালোবাসার স্থান পেয়ে আসছে বাংলাদেশ আর্মি। বিডিআর ও বাংলাদেশ এয়ার ফোর্স কিন্তু জনগনের খুব কাছাকাছি থেকেও তাদের হৃদয়ে স্থান নিতে পারে নি বাংলাদেশ পুলিশ। গতকাল রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে এসব কথা বলেন সরকারের উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন একটি গবেষনা টীমের নির্বাহী সদস্য ও সরকারের স্বরাষ্ট্র প্রতি মন্ত্রী সাহারা খাতুন । কিছুদিন আগে হঠাৎ করেই গোলাপী রঙ এর পেইন্টারযান নিয়ে বায়তুল মোকাররমে হাজির হয়ে পুলিশের রাঙ্গা রাঙ্গি নিয়ে সৃষ্ট ধুয়াসা নিরসনে গতকাল এই সাংবাদিক সম্মেলন আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রী বলেন আর্মি বিভিন্ন সময়ে রোড কালভার্ট নির্মানে এবং জন হিতৈশি কাজে অংশ গ্রহন করার কারনে জনগন তাদেরকে ভালোবাসে তাই আমরা চিন্তা করেছি এখন থেকে পুলিশকেও এমন কাজে নিয়োজিত করবো। এরই অংশ হিসেবে সেদিন বাংলাদেশ পুলিশকে জাতীয় মসজিদ কে রঙ করার জন্য পাঠানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন পুলিশের আইজি ও অন্যান্য চামচা আমলারা। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন আসলে সেদিন মসজিদের আসে পাশে যারা ছিলেন পুলিশ তাদেরকেও রঙ করে দিয়েছে এটা ফ্রী এর জন্য পুলিশ বা সরকারের পক্ষ থেকে কোন চার্জ জনগন থেকে নেয়া হবে না। প্রথম দিন বলেই এভাবে মুসল্লিদেরকেও ফ্রী ফ্রী রঙ করে দেয়া হয়েছে। এত রঙ থাকতে মেয়েদের রঙ বলে খ্যাত গোলাপী রঙ কেন পছন্দ হল এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন আসলে মন্ত্রী ম্যাডাম নিজেই একজন মহিলা এবং আমাদের মাননীয় প্রধান মন্ত্রী ও বিরোধী দলীয় নেত্রীও একজন মহিলা তাদেরই সম্মানার্থে এই রঙ পছন্দ করা হয়েছে। সবশেষে মন্ত্রী মহোদয় রঙ এর পছন্দের ব্যাপারে বন্ধু রাষ্ট্র ভারতের প্রধান মন্ত্রী মনমোহন সিং এর বিশেষ পছন্দের কথাও উল্লেখ করেন। এসময় তার মুখে লাস্যময়ী হাসি ঝুলে থাকতে দেখা যায়।

অত্যন্ত মনোযোগের সাথে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মুকাররম রঙ করছে পুলিশ

Advertisements
%d bloggers like this: