পুঁজিবাজার ধসে ড. আতিয়ার রহমান এবং মাল মুহিত দায়ী: দরবেশ সালমান ফ রহমান

পুঁজিবাজার ধসে বাংলাদেশ ব্যাংক বেশ অনেকাংশেই দায়ী বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব পাবলিকলি লিস্টেড দরবেশ’স এর বাবাজী সালমান ফ রহমান। তিনি বলেন, পুঁজিবাজারে ধসের সময় বাংলাদেশ ব্যাংক এর গভর্নর চশমা ছাড়া সূচক দেখছিলেন আর তার ল্যাপ্টপের মনিটরের ডিসপ্লে সেটিংস এ rotate 180 করা থাকায় তিনি সূচক উলটা দেখছিলেন। যখন সূচক পড়ে যাচ্ছিল তখন তিনি দেখছিলেন সূচক বেড়ে যাচ্ছে। মঙ্গলবার বিকেলে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা এসইসি কর্মকর্তাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের তিনি একথা বলেন।

সালমানের হাত আতিয়ারের দিকে

পুঁজিবাজার ধসে কেন্দ্রীয় ব্যাংককে দায়ী করলেও নিজের সম্পৃক্ততা অস্বীকার করেছেন সালমান এফ রহমান। সংসদসহ পুঁজিবাজারের বিভিন্ন প্লাটফর্মে বাজার ধসে তিনি দায়ী বলে যে আলোচনা-সমালোচনা হচ্ছে সে প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সফল ব্যক্তিদের নিয়েই আলোচনা-সমালোচনা হয়। আপনারা তো দেখতেই পাচ্ছেন আমি গত কয়েক মাসে কী পরিমাণ সফল ব্যবসা করেছি। তাই আমাকে নিয়ে ওরা আসলে হিংসা করছে। তার এই সফলতার পিছনে তার দরবেশীর ভূমিকা কতটুকু তা বলতে তিনি অস্বীকৃতি জানান।

দরবেশ বাবা

পুঁজিবাজার ধসে তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে তার সম্পর্কে সতর্ক থাকতে সরকারকে পরামর্শ দেয়ার বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে সালমান রহমান বলেন, নীতি নির্ধারণীতে সরকার আমাকে রাখবে কি না সেটা একান্তই সরকারের ব্যাপার। তবে আমি মনে করি এইসব ব্যাপারে মাল মুহিত এর উপর আস্থা রাখার দিন শেষ হয়েছে। মাল মুহিত আসলে আমার চেয়েও বুড়া। আর আমাকে দেখতে যেমনই লাগুক আমি কিন্তু আসলে অতটা বৃদ্ধ না। তিনি মাল মুহিতের আরো একটা বিষয় সবার দৃষ্টি আকর্ষন করেন। তিনি জানান,মাল মুহিতকে সকালে কোনো বিষয় জানালে তিনি দুপুরের লাঞ্চ আওয়ার পর্যন্ত তা মনে রাখতে পারেনা। এর পর তিনি ভূলে যান। এজন্যই আসলে পুঁজিবাজারের ধ্বসে খবর তিনি বেশিক্ষণ মনে রাখতে পারেননি। তিনি পরদিনও ভাবছিলেন পুঁজিবাজার বেশ তেজী ঘোড়ার মত এগিয়ে চলেছে। সেক্ষেত্রে একজন নতুন অর্থমন্ত্রীর প্রয়োজন হয়ে পড়েছে বলে দরবেশ রহমান মনে করেন।

নিজে দায়মুক্ত হয়ে মাল কে দুশছেন সালমান

আপনি কি নিজেকে নেক্সট অর্থমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চান, সাংবাদিক দের এই প্রশ্নের জবাবে সালমান ফ বলেন, আসলে আমি চাই একজন বিজনেস সেক্টরের লোককে এই দ্বায়িত্ব দেওয়া হোক। সে খুব বয়স্কও হবেনা আবার একদম অল্পবয়সীও হবেনা। তার দাঁড়ি থাকা বাঞ্ছনীয়। আর দাঁড়ি পাকা হতে হবে। আর তিনি খুব সফলভাবে ব্যবসা করতে জানতে হবে।
আপনার বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে আপনি শেয়ারবাজার থেকে লুটের টাকার প্রতিশ্রুত অংশ থেকে আপনার উর্ধ্বতন নেতৃবৃন্দকে বঞ্ছিত করে বলেছেন যে আপনার আড়াই হাজার কোটি টাকা পকেটমার হয়ে গেছে, এ ব্যাপারে আপনার বক্তব্য কী? এক সাংবাদিকের এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন এটা নিছক গুজব। তবে, আড়াই হাজার কোটি টাকা পকেটমার হয়ে গেছে একথা সত্য। তবে তিনি তার পকেটের সাইজ দেখাতে অস্বীকৃতি জানান। তিনি বলেন এটা তার ব্যাক্তিগত ব্যাপার।
তবে অনেক কাঠ খড় পুড়িয়ে ঠাডা প্রতিনিধি বাবার মন্ত্রটা উদ্ধার করেছেন,

আমার বাবা এফ রহমানী,
নামের গুনে আগুন হয় পানি
সূচক হৈয়া যায় নূরানী চাইলে এক নজর!
মন্ত্রী বানাইয়া দেরে
অক্ষন এই বছর

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s